শনিবার ১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ২৯শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম >>
শিরোনাম >>

গাজীপুরে দুই মহাসড়কে ঘরমুখো মানুষের ঢল, চন্দ্রায় ৫ কিলোমিটার যানজট 

গাজীপুর প্রতিনিধি   |   মঙ্গলবার, ০৯ এপ্রিল ২০২৪   |   প্রিন্ট   |   82 বার পঠিত

গাজীপুরে দুই মহাসড়কে ঘরমুখো মানুষের ঢল, চন্দ্রায় ৫ কিলোমিটার যানজট 

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে দুই মহাসড়কে ঘরমুখো মানুষের ঢল নেমেছে। ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের চন্দ্রা এলাকায় প্রায় ৫ কিলোমিটার এলাকায় যানজট সৃষ্টি হয়েছে। তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে কাজ করে যাচ্ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

সোমবার (৮ এপ্রিল) দুপুর পর্যন্তও  মহাসড়ক ছিল স্বাভাবিক। তবে দুপুরের পর হঠাৎ মহাসড়কে ঘরমুখো মানুষের উপচে পড়া ভিড় দেখা দিয়েছে। অতিরিক্ত মানুষের চাপে বিভিন্ন পয়েন্টে দেখা দিয়েছে যানজট। গাজীপুরের  চৌরাস্তা – টাঙ্গাইল মহাসড়কের সফিপুর-চন্দ্রা-খাড়াজোড়া এলাকা পর্যন্ত এবং কালিয়াকৈর নবীনগর সড়কের বারুইপাড়া  হতে  চন্দ্রা কয়েক কিলোমিটারজুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। বিকেল পেরিয়ে সন্ধ্যা পর্যন্ত  চন্দ্র এলাকায় ঘরমুখো মানুষের ঢল বাড়তেই থাকে। যাত্রী অনুযায়ী পরিবহনের সংখ্যা খুবই কম হওয়ায় অপেক্ষমান যাত্রীদের  উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা যায় । সুযোগ বুঝে পরিবহনে ভাড়াও তিন -চার গুণ বেশি আদায় করার অভিযোগ রয়েছে।

যাত্রী ও পরিবহন সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, গাজীপুরে ছোটবড় প্রায় ৫ হাজার শিল্পকারখানা রয়েছে। এসব কারখানার মধ্যে অধিকাংশ ছুটি হয়েছে আজ। ইতোমধ্যে দুপুর ১২ টার পর অনেক কারখানা শ্রমিকরা ছুটি পেয়ে বাড়ির উদ্দেশ্য রওনা দিয়েছে। ফলে বেড়েছে যাত্রীদের ভিড়, দেখা দিয়েছে যানজট। তবে সন্ধ্যা নাগাদ এই চাপ আরও কয়েকগুণ বৃদ্ধি পাবে বলে মনে করা হচ্ছে।

মুস্তাফিজুর রহমান নামে এক পোশাক কারখানা শ্রমিক বলেন, ১২ টার দিকে অফিস থেকে বের হয়ে গেছি৷ এখন চন্দ্রা আসলাম তবে অনেক ভিড়। গাড়ি ভাড়া তিন চার গুণ বেশি। কষ্ট হলেও বাড়িতে যেতে হবে।

শামসুল আলম নামে একজন কারখানা শ্রমিক বলেন, বর্তমানে যে পরিমাণ মানুষ মহাসড়কে দেখা যাচ্ছে সন্ধ্যায় কি অবস্থা হবে বলা মুশকিল। অতিরিক্ত মানুষের চাপে ভাড়া ও বেশি নিচ্ছে গাড়িতে। তবুও মানুষ যাচ্ছে। বাড়িতে যেতে পারলেই খুশি।

কারখানা র শ্রমিক ইলিয়াস  হোসেন -কল্পনা আক্তার দম্পতি  বলেন, আজ দুপুরে ফ্যাক্টরি ছুটি হয়েছে। পরিবার নিয়ে ঈদ করতে গ্রামের বাড়ি সিরাজগঞ্জ রওনা হয়েছি। ঈদের সামনে যানজট ভোগান্তি একটু হবেই৷ ভালো একটা গাড়ি পেলে সমস্যা হবে না। আমার মতো এমন হাজার হাজার মানুষ এসব মাথায় নিয়েই ঈদ করতে বাড়ি যায়।

নাওজোর হাইওয়ে পুলিশের ওসি শাহাদাৎ হোসেন বলেন, দুপুরের দিকে কারখানা ছুটি হওয়ার যাত্রীর চাপ বেড়েছে। ফলে চন্দ্রায় যানবাহনে ধীরগতি আছে। আজকাল একটু চাপ হবেই৷  যাত্রাপথ স্বাভাবিক রাখতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কাজ করে যাচ্ছে।

Facebook Comments Box

Posted ১২:৫৭ পূর্বাহ্ণ | মঙ্গলবার, ০৯ এপ্রিল ২০২৪

ajkersangbad24.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এ বিভাগের আরও খবর

সম্পাদক
ফয়জুল আহমদ
যোগাযোগ

01712000420

fayzul.ahmed@gmail.com