শনিবার ১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ২৯শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম >>
শিরোনাম >>

গাজীপুরে সিজারের পর প্রসূতির মৃত্যু, হাসপাতালে ভাঙচুর, কর্তৃপক্ষ পলাতক

গাজীপুর প্রতিনিধি   |   সোমবার, ০১ এপ্রিল ২০২৪   |   প্রিন্ট   |   73 বার পঠিত

গাজীপুরে সিজারের পর প্রসূতির মৃত্যু, হাসপাতালে ভাঙচুর, কর্তৃপক্ষ পলাতক

গাজীপুরের শ্রীপুরে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও চিকিৎসকের অবহেলায় প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। এ সময় কর্তৃপক্ষ হাসপাতাল ছেড়ে পালিয়ে গেলে উত্তেজিত স্বজনেরা হাসপাতালে ব্যাপক ভাঙচুর চালান।
নিহত ইয়াছমিন আক্তার (৩০) গাজীপুর সদর উপজেলার বানিয়ারচালা পালপাড়া গ্রামের ব্যবসায়ী মো. আসাদুল্লাহর স্ত্রী।

জানা যায়, রোববার (৩১ মার্চ) দুপুর ১২টার দিকে ইয়াসমিন প্রসব বেদনা নিয়ে পৌরসভার মাওনা চৌরাস্তার লাইফ কেয়ার হাসপাতালে যান। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ওই প্রসূতির সিজার করার কথা জানান। পরবর্তীতে ১৪ হাজার টাকায় তারা সিজারে চুক্তিবদ্ধ হন এবং রমজান মাস থাকায় ইফতারের পর সিজার করা হবে বলে জানানো হয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বিকেল চারটার দিকে হঠাৎ সিজার করার সিদ্ধান্ত নেন। সিজারের পর ওই প্রসূতি এক ছেলে সন্তানের জন্ম দেন। পরে অপারেশন থিয়েটার থেকে প্রসূতিকে কেবিনে স্থানান্তর করা হলে প্রসূতির রক্তক্ষরণ শুরু হয়।তাৎক্ষণিকভাবে হাসপাতালের চিকিৎসক ও নার্সদের বিষয়টি জানালে তারা প্রসূতিকে বিভিন্ন ধরনের ওষুধ প্রয়োগ করেন। এরপরও রক্তক্ষরণ না থামায় রাত ৯টার দিকে প্রসূতি নিস্তেজ হয়ে পড়লে দ্রুত ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর পরামর্শ দেন। পরবর্তীতে প্রসূতির স্বজনেরা পার্শ্ববর্তী হাসপাতাল থেকে অন্য ডাক্তার এনে রোগীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করান, এ সময় তার পালস্ পাওয়া না গেলে কর্তৃপক্ষ হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যায়। স্বজনেরা উত্তেজিত হয়ে হাসপাতালে ব্যাপক ভাঙচুর চালান।পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

নিহতের স্বামী মো আসাদুল্লাহ ও নিহতের মামা জাহাঙ্গীর আলম জানান, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও চিকিৎসকের গাফিলতিতে দুইজন শিশু আজ এতিম হয়েছে। আমরা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও চিকিৎসকের শাস্তি দাবি করছি।

শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) এনায়েত কবির বলেন, খবর পেয়ে শ্রীপুর থানার একাধিক টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে ঘটনাস্থলে পাওয়া যায়নি, তারা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে গেছে। নিহতের স্বজনদের লিখিত আবেদনের প্রেক্ষিতে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শোভন রাংসা বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ঘটনা শুনে হাসপাতালে গিয়ে প্রসূতির স্বজনের সঙ্গে কথা হয়েছে। হাসপাতালের বিষয়ে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে।

Facebook Comments Box

Posted ৫:৫৬ অপরাহ্ণ | সোমবার, ০১ এপ্রিল ২০২৪

ajkersangbad24.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এ বিভাগের আরও খবর

সম্পাদক
ফয়জুল আহমদ
যোগাযোগ

01712000420

fayzul.ahmed@gmail.com