শুক্রবার ১৪ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম >>
শিরোনাম >>

সিলেট বিভাগের ১৯ আসনের অধিকাংশ আসনে নৌকার প্রার্থী জয়ী হওয়ার সম্ভাবনা

অনলাইন ডেস্ক   |   শনিবার, ০৬ জানুয়ারি ২০২৪   |   প্রিন্ট   |   60 বার পঠিত

সিলেট বিভাগের ১৯ আসনের অধিকাংশ আসনে নৌকার প্রার্থী জয়ী হওয়ার সম্ভাবনা

ফাইল ছবি

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটের লড়াইয়ে সিলেটের ১৯টি আসনে রয়েছেন ১০৫ জন প্রার্থী।
অধিকাংশ আসনে নৌকার প্রার্থীদের জয়ী হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল।

ছয়টি আসনে বাধাহীন নৌকা নিয়ে বৈতরণী পার হতে যাচ্ছেন মাঝিরা। নৌকা প্রতীকে আওয়ামী লীগের সেসব প্রার্থীরা হলেন- সিলেট-১ আসনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. এ কে আব্দুল মোমেন এমপি, সিলেট-৪ আসনে প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপি, মৌলভীবাজার-১ আসনে পরিবেশ ও বনমন্ত্রী শাহাব উদ্দিন এমপি, মৌলভীবাজার-৩ আসনে মো. জিল্লুর রহমান, মৌলভীবাজার-৪ আসনে সাবেক হুইপ উপাধ্যক্ষ আব্দুস শহীদ এবং সুনামগঞ্জ-৩ আসনে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

এছাড়া আরো ছয়টি আসনে শক্ত অবস্থানে থাকা নৌকার প্রার্থীদের বিজয়ী হওয়ার সম্ভাবনা থাকলেও ৭টি আসনে স্বতন্ত্রদের বাধার মুখে ডুবতে পারে নৌকা। এলাকাগুলোতে খোঁজ নিয়ে ও সংশ্লিষ্ট এলাকার ভোটারদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

সিলেট-১ আসনে ড. এ কে আব্দুল মোমেন ও ইমরান আহমদ সিলেট-৪ আসনে নৌকা প্রতীকে ফাঁকা মাঠে গোল দিতে যাচ্ছেন। তাদের প্রতিদ্বন্দ্বিরা কেবল নামকাওয়াস্তে।

সিলেট-২ আসনে এবার নৌকার শক্ত মাঝি আওয়ামী লীগের প্রার্থী শফিকুর রহমান চৌধুরী। তার সঙ্গে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতায় স্বতন্ত্র প্রার্থী ট্রাক প্রতীকে পৌর মেয়র মহিবুর রহমান, লাঙ্গল প্রতীকে জাতীয় পার্টির ইয়াহইয়া চৌধুরী এবং বর্তমান এমপি মোকাব্বির খান। আসনটিতে ১০ বছর পর নৌকার কান্ডারি বিজয়ী হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে।

সিলেট-৩ আসনে সাতজন প্রার্থী থাকলেও হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে ট্রাক প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা ও বিএমএর মহাসচিব ডা. ইহতেশামুল হক দুলাল, নৌকা প্রতীকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বর্তমান সংসদ সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিব এবং লাঙ্গল প্রতীকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী আতিকুর রহমান। তবে সংসদে বিদ্যুৎ বিল বাড়ানোর হাবিবের দাবি ইস্যুতে ধাক্কা এখন নৌকায় লাগছে।

সিলেট-৫ আসনে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে এগিয়ে আছেন আঞ্জুমানে আল ইসলাহ’র সভাপতি মাওলানা হুছামুদ্দিন চৌধুরী, তার শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নৌকার প্রার্থী আওয়ামী লীগ মনোনীত মাসুক উদ্দিন আহমদ ও ট্রাক প্রতীকে আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র প্রার্থী ড. আহমেদ আল কবীর। তবে এ দুই নেতাকে পাশ কাটিয়ে কেটলী জয়ী হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে।

সিলেট-৬ আসনে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে তিন প্রাথী। তারা হলেন, নৌকার কান্ডারি সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি, সোনালী আঁশ প্রতীকে তৃণমূল বিএনপির চেয়ারপার্সন শমসের মবিন চৌধুরী ও ঈগল প্রতীকে আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র প্রার্থী সরওয়ার হোসেন। আসনটিতে স্বতন্ত্রের সামনে কঠিন চ্যালেঞ্জে নৌকা।

মৌলভীবাজার-১ আসনে বন ও পরিবেশ মন্ত্রী শাহাব উদ্দিনের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আছেন লাঙ্গল প্রতীকে জাপার আহমেদ রিয়াজ। তবে আওয়ামী লীগ দুর্গ বড়লেখা জুড়িতে নৌকার বিজয় নিশ্চিত ধরে নিচ্ছেন জনতা।

মৌলভীবাজার-২ আসনে নৌকা প্রতীকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী দলটির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল। তার শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী নিজ দলের স্বতন্ত্র প্রার্থী এ কে এম শফি আহমদ ছলমান এবং সাবেক এমপি তৃণমূল বিএনপির প্রার্থী এম এম শাহীন। এ আসনে চা শ্রমিক জনগোষ্ঠীর ভোটে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে পারে। এছাড়া আল ইসলাহ’র ভোট ব্যাংকও নাদেলকে পছন্দ করে।

মৌলভীবাজার-৩ আসনে নৌকা প্রতীকে অলীলা গ্রুপের চেয়ারম্যান মো. জিল্লুর রহমান ও মৌলভীবাজার-৪ আসনে নৌকার প্রার্থী উপাধ্যক্ষ আব্দুস শহীদকে প্রতিদ্বন্দ্বিতাহীন ধরা হচ্ছে।

সুনামগঞ্জ-১ আসনে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রণজিত সরকার নৌকা নিয়ে দুই কোটিপতি স্বতন্ত্র প্রার্থীর চাপে আছেন। তারা হলেন কেতলি প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান এমপি মোয়াজ্জেম হোসেন রতন এবং জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি মো. সেলিম আহমদ (ঈগল)। তিনজনই একদলের হওয়াতে আওয়ামী লীগে বিভক্তি রয়েছে। তবে আমজনতার সমর্থন সেলিমের পক্ষে থাকায় তার বিজয়ের সম্ভাবনা দেখছেন স্থানীয়রা।

সুনামগঞ্জ-২ আসনে আওয়ামী লীগের নৌকার প্রার্থী চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ ও বর্তমান এমপি সুরঞ্জিত পত্মী জয়া সেন গুপ্তা কাঁচি প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে লড়ছেন। তবে উন্নয়ন বঞ্চনায় চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ আছেন সুবিধাজনক অবস্থানে।

সুনামগঞ্জ-৩ আসনে নৌকা প্রতীকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বর্তমান এমপি ও পরিকল্পনা মন্ত্রী এ এম মান্নান ভোটে অপ্রতিদ্বন্দ্বী। যদিও আসনটিতে মূল প্রতিদ্বন্দ্বী জমিয়ত ছেড়ে তৃণমূলের ব্যানারে আসায় শাহিনুর পাশা বিতর্কিত অবস্থানের কারণে পিছিয়ে আছেন।

সুনামগঞ্জ-৪ আসনে আসনটিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ড. সাদিকুর রহমানকে নৌকা প্রতীকে বিজয়ী হওয়ার সম্ভাবনা দেখছেন। তার সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান এমপি জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীকে পীর ফজলুর রহমান। কিন্তু স্থানীয় আওয়ামী লীগ একাট্টা হওয়ায় তার বিজয়ী হওয়ার সম্ভাবনা বেশি বলে মনে করছেন স্থানীয়রা।

সুনামগঞ্জ-৫ আসনে বর্তমান সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক আবারো নৌকা প্রতীকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হয়েছেন। এ আসনে তার শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী ঈগল প্রতীকে দলের স্বতন্ত্র প্রার্থী শামীম আহমদ চৌধুরী। আসনটিতে আরও সাতজন প্রার্থী থাকলেও তারা আলোচনায় নেই। তবে বিগত দিনে নির্বাচনী এলাকা দোয়ারা বাজারে উন্নয়নের ছোঁয়া না লাগায় নৌকা ডোবার কারণ হতে পারে আসনটিতে।

হবিগঞ্জের চারটি আসনে ২৯ জন প্রার্থী রয়েছেন ভোটের মাঠে। হবিগঞ্জ-১ আসনটি আওয়ামী লীগ জোটের ভাগে জাতীয় পার্টিকে দেওযা হয়েছে। এ আসনে জাপার লাঙ্গল প্রতীকে এম এ মুনিম চৌধুরী বাবু’র প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী ঈগল প্রতীকে সাবেক সংরক্ষিত আসনের এমপি আমাতুল কিবরিয়া চৌধুরী কেয়া। গত ৫টি বছর তিনি মানুষের কাছাকাছি ছিলেন, যে কারণে ভোটের মাঠে তার আধিপত্যের কাছে জোটের প্রার্থী হারতে পারেন।

হবিগঞ্জ-২ আসনে নৌকার প্রার্থী ময়েজ উদ্দিন শরীফ। তার বাবা বঙ্গবন্ধুর সহচর ও একাধিকবারের এমপি ছিলেন। যে কারণে তাকে ঘিরে একাট্টা আওয়ামী লীগ। এ আসনে ঈগল প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান এমপি আব্দুল মজিদ খান প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ভোটের বাজারে আসনটিতে নৌকাকে এগিয়ে রাখছেন জনতা।
হবিগঞ্জ-৩ আসনে অনেকটা অপ্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান এমপি আওয়ামী লীগ মনোনীতে নৌকার প্রার্থী আবু জাহিদ। তার বিপক্ষে আরও ৮ প্রার্থীর ভিড়ে লাঙ্গল প্রতীকে জাপার ইঞ্জিনিয়ার এসএম মনিম চৌধুরী প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী। তবে এলাকায় জনপ্রিয় হিসেবে আবু জাহিদকে বেছে নেবেন ভোটাররা, এমনটি জানা গেছে।

হবিগঞ্জ-৪ আসনে ৮ প্রার্থীর মধ্যে নৌকার প্রার্থী বর্তমান এমপি বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী খানের শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী ঈগল প্রতীকে ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। আসনটিতে ব্যারিস্টার সুমনের জনপ্রিয়তা রয়েছে। এ আসনে ভোটের মাঠে চা শ্রমিকরা মূল ফ্যাক্টর। আর চা শ্রমিকদের আন্দোলনে অগ্রভাবে ছিলেন সুমন।

Facebook Comments Box

Posted ১১:০২ অপরাহ্ণ | শনিবার, ০৬ জানুয়ারি ২০২৪

ajkersangbad24.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক
ফয়জুল আহমদ
যোগাযোগ

01712000420

fayzul.ahmed@gmail.com