বুধবার ২৪শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম >>
শিরোনাম >>

আওয়ামী লীগ কর্মীদের সঙ্গে রাশেদ খান মেননের সভা চলাকালে মারামারি

অনলাইন ডেস্ক   |   সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০২৩   |   প্রিন্ট   |   58 বার পঠিত

আওয়ামী লীগ কর্মীদের সঙ্গে রাশেদ খান মেননের সভা চলাকালে মারামারি

বরিশাল-২ আসনের নৌকার প্রতীকের প্রার্থী বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেননের সঙ্গে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মতবিনিময় সভা চলাকালে মারমারির ঘটনা ঘটেছে। এতে আহত হয়েছেন অন্তত চার থেকে পাঁচজন।
পরে পুলিশ এসে নিয়ন্ত্রণে আনে পরিস্থিতি। ঘটনাটি তুচ্ছ বলে দাবি করেছে উপজেলা আওয়ামী লীগ।

সোমবার (১৮ ডিসেম্বর) বিকেলে বানারীপাড়া পৌর এলাকার খেয়াঘাট সংলগ্ন দলীয় কার্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, সোমবার বিকেলে বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের মতবিনিময় সভায় যোগ দেন বরিশাল-২ আসনের নৌকার প্রার্থী রাশেদ খান মেনন। এ সময় নৌকা প্রতীকের এই প্রার্থীর সমর্থকদের সঙ্গে তর্কে জড়ায় আসনটির বর্তমান সংসদ সদস্য শাহে আলমের অনুসারীরা। একপর্যায়ে তা মারামারিতে রূপ নেয়।

স্থানীয়রা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানিয়েছেন, বানারীপাড়া উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য (এমপি) শাহ আলম এবং জেলার সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট তালুকদার মো. ইউনুস অনুসারী রয়েছে। অ্যাডভোকেট ইউনুস মনোনয়ন পাওয়ার পর শাহআলম এমপি অনুসারীরা নিষ্ক্রিয় হয়। অ্যাডভোকেট ইউনুসের পরিবর্তে মেননকে মনোনয়ন দেওয়া হলে তারা (এমপি অনুসারী) আবার সক্রিয় হয়েছে। আর তারাই দলীয় কার্যালয়ে প্রবেশ করতে চাইলে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বাধা দেয়। তখন দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি ও মারামারি হয়েছে।

এমপি শাহ আলমের অনুসারী ও স্বজন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নুরুল হুদা সাংবাদিকদের জানান, নৌকার প্রতীকের মনোনীত প্রার্থী রাশেদ খান মেনন বানারীপাড়ায় আসেন। তাকে ডাক বাংলো মোড়ে অভ্যর্থনা জানিয়ে দলীয় কার্যালয়ে যান। দলীয় কার্যালয়ের সামনে গেলে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যানের নির্দেশে কর্মীরা তর্ক শুরু করেন। একপর্যায়ে হাতাহাতি ও পরে পিটিয়ে তিনজনকে আহত করেছে। খবর পেয়ে পুলিশ এসে পরিস্থিতি শান্ত করেছে।

এদিকে বানারীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম ফারুক বলেন, কিছু লোক সভায় বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করার চেষ্টা করেছিল। নেতাকর্মীরা তাদের প্রতিহত করেছে। দলের মধ্যে যারা বিশৃঙ্খলা করবে তাদের ছাড় দেওয়া হবে না।

আর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাওলাদ হোসেন সানা বলেন, আমরা প্রার্থীকে নিয়ে দলীয় কার্যালয়ে সভা করেছিলাম। এ সময় কার্যালয়ের বাইরে ঝামেলা হয়েছে শুনেছি। কারা কারা ছিল তা আমি জানি না।

বানারীপাড়া থানার মাইনুল ইসলাম বলেন, দলীয় কার্যালয়ের মধ্যে একটু হাতাহাতি হয়েছে। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করেছে।

Facebook Comments Box

Posted ৫:১৭ অপরাহ্ণ | সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০২৩

ajkersangbad24.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এ বিভাগের আরও খবর

সম্পাদক
ফয়জুল আহমদ
যোগাযোগ

01712000420

fayzul.ahmed@gmail.com